blog

পরিপাকে উন্নতি ঘটাতে কি কি খাবার আপনার খাদ্য তালিকায় অবশ্যই থাকা দরকার।

আমাদের শরীরের প্রতিটা কৌশ ভালো থাকার ওপর পরিপাকের প্রভাব বিদ্যমান। যদি বুক জ্বালাপোড়া করে, কোষ্ঠকাঠিন্য, পেটে ব্যথা, গ্যাস এবং ডায়রিয়া ভুগছেন তাহলে বুঝতে হবে যে আপনার পরিপাকতন্ত্রএর সাহায্য প্রয়োজন। পরিপাকের সমস্যা হলে ক্লান্তি ঘুম কমে যায় মেজাজ খারাপ হওয়া এবং ত্বকের তৈলাক্ততা বা শুষ্ক হয়ে যাওয়ার সমস্যা দেখা দেয়। পরিপাক প্রক্রিয়া সঠিকভাবে সম্পন্ন হলে এনার্জি লেভেল বৃদ্ধি পায় তাকে সুখানুভূতি হয় এবং ভালো ঘুম হয়।

অস্বাস্থ্যকর ও অন্ত্রের ক্ষতি করে এমন খাদ্য আপনার খাদ্য তালিকা থেকে বাদ দিন এবং স্বাস্থ্যকর ও পরিপাকের উন্নতি ঘটায় এমন খাবার খান।

১। কাঁচা পেঁপে

আমরা সকলেই জানি পেঁপে শরীরের জন্য কতটা উপকারী। কাঁচা পেপের গুন কম নেই পরিপাকতন্ত্র নিয়ন্ত্রণের। তাই কাঁচা পেঁপে আপনার খাদ্য তালিকায় অবশ্যই থাকা দরকার। এটা শুধু হজম ও মল নিরাময়ে সাহায্য করে না বরং কোন থেকে ক্ষতিকর বিষাক্ত পদার্থ   নির্গমনের সাহায্য করে.

2 আদা

খাদ্য পরিপাকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আদা। সকালে খালি পেটে এক এক কাপ আদা চা পান করতে পারে অথবা রান্নায় যোগ করতে পারেন আদার পেস্ট। আদায় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও ভোলাটাইল অয়েল থাকে যা শুধু পুষ্টি উপাদান শোষণে সাহায্য করে না বরং পরিপাক নিঃসরণে সাহায্য করে।

৩। সাইট্রাস ফল

আস্ত সাইট্রাস ফল খাওয়া অথবা সাইট অফ অরেঞ্জ জুস খাওয়া উন্নতিতে সাহায্য করে। এতেও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ভরপুর সাইটস ফর শুধু পরিপাকনালী থেকে ক্ষতিকর বিষাক্ত পদার্থ বের করে দেয় না বরং পুষ্টি উপাদান শোষণের প্রক্রিয়ায় সাহায্য করে।

৪। মৌরি

মৌরির হজম প্রক্রিয়ায় উদ্দীপিত করে কারণ এতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও হজম বৃদ্ধিকারী উপাদান থাকে। মৌরির বায়ু নাশকারী বৈশিষ্ট্যের জন্য পেট ফাঁপার সমস্যা দূর করতে পারে তা ছাড়াও পরিপাকের উন্নতির জন্য খাওয়ার পর মৌরি খেতে পারেন অথবা বা তরকারিতে যোগ করতে পারেন ।

৫। টক দই

পরিপাকের উন্নতি ঘটাতে এবং হজমের সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে টক দই। টক দই এনজাইম ও ভালো ব্যাকটেরিয়া হজমের উন্নতি ঘটাতে সাহায্য করে। ভালো হজমের জন্য প্রতিদিন দই ভাত অথবা এক বাটি দই খেতে পারেন।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


%d bloggers like this: