blog

রোগ নিরাময়েও কার্যকর মুগ ডাল

নিয়মিত খাবারের তালিকায় অন্যতম পরিচিত হচ্ছে ডাল। বাঙালিদের মাঝে ডাল খেতে পছন্দ করেন না এমন লোকের দেখা খুব কমই মেলে। খাবারের তালিকায় বিভিন্ন ডাল যেমন, মুগ ডাল, অড়হর ডাল, মাসকলইয়ের ডাল, ছোলার ডাল, মসুর ডাল ইথ্যাদি অনেক গুরুত্ব পায়।

প্রোটিনের অন্যতম ভালো উৎস। এটি আমিষ ও নিরামিষাশী সব ক্ষেত্রেই শরীরের প্রোটিন চাহিদা মেটায়। এ ছাড়াও মুগডালে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন, ভিটামিন, পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, কপার, জিঙ্ক, ফোলেট ও ফাইবার থাকে। সুস্বাদু এই ডালে প্রচুর পুষ্টিগুন থাকার পাশাপাশি এটির রয়েছে খুব তাড়াতাড়ি হজম হবার ক্ষমতা। আর গর্ভবতী নারীদের জন্যেও এই ডাল খাওয়া অনেক উপকারী।

পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ মুগ ডাল মেলে অনেক স্বাস্থ্য উপকারীতাও। জানুন মুগ ডাল খাওয়ার যত স্বাস্থ্য উপকারিতা-

১. অ্যান্টিঅক্সিরডেন্ট সমৃদ্ধ
মুগ ডালে প্রচুর পরিমানে অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট থাকার কারণে এটি দীর্ঘস্থায়ী বিভিন্ন রোগ হবার ঝুঁকি কমতে পারে। বিশেষকরে এতে ফেনলিক অ্যাসিড, ফ্ল্যাভোনয়েডস, ক্যাফিক অ্যাসিড, সিনাইমিক অ্যাসিড সহ আরও অনেকগুলি স্বাস্থ্যকর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে। আর সমীক্ষায় দেখা গেছে যে এই ডাল ফুসফুস এবং পেটের কোষগুলিতে ক্যান্সারের বৃদ্ধি হ্রাস করতে পারে।

২. স্ট্রোক হওয়ার ঝুঁকি কমায়
মুগ ডালে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্য থাকায় এটি স্ট্রোক হবার ঝুকিঁ কমায়। এতে ভিটেক্সিন এবং আইসোভাইটেক্সিনের মতো অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস থাকে। 

৩. রক্তশূন্যতার সমস্যা মেটায়
মূগ ডাল শরীরের রক্তশূন্যতার সমস্যা দূর করে। এর এক কাপে মেলে প্রায় ১৬ ভাগ আয়রন। আর এতে প্রচুর পরিমাণে আয়রন থাকার কারণে এই ডাল নিয়মিত খেলে এটি লোহিত রক্ত কণিকার উৎপাদন বৃদ্ধি করে রক্তশূন্যতা দূর করে।

৪. রক্তচাপ কমায়
এই ডালে ফাইবার, পটাশিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম থাকার কারণে এটি রক্তচাপ কমাতে কার্যকরী। ফলে এটি হার্টের সমস্যা হবার ঝুকিকেও কমাতে সহায্য করে।

৫. হজমে সহায়তা করে
মুগ ডালে ফাইবার এবং প্রতিরোধী স্টার্চ থাকার কারণে এটি হজমে ভালো কাজ করে। এই ডালের ২০২ গ্রামে প্রায় ১৫.৪ গ্রাম ফাইবার থাকে। এ ছাড়া এতে প্রতিরোধী স্টার্চ ও  পেকটিন নামে এক ধরণের দ্রবণীয় ফাইবার থাকে যেটি অন্ত্রের মাধ্যমে খাবারের চলাচলের গতি বাড়ানোর পাশাপাশি অন্ত্রের নিয়মিত গতিবিধি ঠিক রাখতে সহায়তা করে।

৬. গর্ভবতী নারীদের জন্য উপকারী
এক কাপ রান্না করা মুগ ডালে প্রায় ৮০ শতাংশ ফোলেট থাকে। আর গর্ভাবস্থায় নারীদের প্রচুর পরিমাণে ফোলেটযুক্ত খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকেরা। কারন ফোলেট গর্ভের সন্তানের বৃদ্ধি এবং বিকাশের জন্য অপরিহার্য। তাই গর্ভবতী নারীদের জন্য মুগ ডাল অনেক উপকারী।

৭. ওজন কমায়
মুগ ডালে ফাইবার এবং প্রোটিনের পরিমান বেশি থাকার কারণে ওটি ওজন কমাতে সহায়তা করে। গবেষণায় দেখা গেছে, ফাইবার এবং প্রোটিন ক্ষুধা বৃদ্ধিকারক হরমোনকে দূর করতে পারে। এর ফলে বেশি খাবার খাওয়ার প্রবনতা কমে যায়। তাই এটি ওজন কমাতে সহায়তা করে।

৮. রক্তে শর্করার মাত্রা কমায়
মুগ ডালে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার এবং প্রোটিন থাকার কারণে এটি রক্তের শর্করার পরিমাণ কমাতে সহায়তা করে।এ ছাড়া এটি ইনসুলিনকেও আরও কার্যকরভাবে কাজ করতে সহায়তা করে।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


%d bloggers like this: