blog

কম্পিউটার বেশি ব্যবহারে কি কি সমস্যা হতে পারে?

কম্পিউটার এমন একটি যন্ত্র যার দ্বারা আজ আমরা অনেক সমস্যার সমাধান এক নিমেষে করতে পারি। বড় মাপের যোগ বিয়োগ হোক কি চাকরির পরীক্ষা সব কিছুতেই আমরা কম্পিউটারের সাহায্যে নিতে পারি। কম্পিউটার প্রচন্ড ভাবে আমাদের সময় বাঁচায় এবং আমাদের জীবন যাত্রাকে সরল করে তোলে।

কম্পিউটারের উপকার আমাদের জীবনে যেমন অনস্বীকার্য। আবার এই কম্পিউটারের দৌলতে সারাদিন একভাবে বসে থেকে এবং একনাগাড়ে কম্পিউটারের দিকে তাকিয়ে আমাদের শরীরে এবং মনে নানা রকম সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাহলে আজ সেই রকম কিছু ক্ষতি দেখে নেওয়া যাক যা সারাদিন কম্পিউটারের সামনে বসে থাকলে আমাদের হয়ে থাকে।

শারীরিক কার্যকলাপের অভাব 

সারাদিন কম্পিউটারের সামনে বসে থাকলে আমাদের শারীরিক হাঁটাচলা কমে যায়। আমরা খেলাধুলা বাদ দিয়ে কম্পিউটারের গেমস খেলতে থাকি যার ফলে আমাদের মেদবৃদ্ধি ঘটে। মেদবৃদ্ধি কিন্তু আমাদের শরীরে নানা রকম সমস্যা নিয়ে আসতে পারে যেমন হাই ব্লাড প্রেসার,ডায়াবেটিস ইত্যাদি। তাই বেশিক্ষণ কম্পিউটারের সামনে বসা উচিত নয়।

শরীরের রক্ত ​​সঞ্চালন কমে যায় 

অনেকটা সময় এক জায়গায় বসার ফলে আমাদের শরীরে রক্ত ​​সঞ্চালন কমে যায়। রক্ত ​​সঞ্চালন কম হয়ে যাওয়ার ফলে নানা সমস্যা হতে পারে। যেমন রক্তের জমাট বেঁধে যাওয়া বা আমাদের পেশীতে ক্রাম্প হয়ে যাওয়া ইত্যাদি। রক্তের ঠিকঠাক ​সঞ্চালনের জন্য কিছুক্ষন পর পর কম্পিউটারের সামনে থেকে উঠে আমাদের হেঁটে বেড়ানো উচিত।

চোখের উপর চাপ পড়ে 

অনেক্ষন কম্পিউটার স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকলে আমাদের চোখের উপর খুবই চাপ পড়ে যায়। যার ফলে আমাদের চোখে নানা রকম সমস্যা দেখা দিতে পারে। যেমন চোখ লাল হয়ে যাওয়া,ফুলে যাওয়া ইত্যাদি। তাই যদি আমাদের কম্পিউটার স্ক্রিনের সামনে বসে থাকা অতন্ত জরুরি তাহলে অন্তত কিছুক্ষন পর পর কম্পিউটার ছেড়ে অন্য কোনো দূরের জিনিসের উপর তাকাতে হবে। এইভাবে আমাদের চোখের উপরের চাপ ও কম পড়বে। মাঝে মাঝে চোখে ঠাণ্ডা জলের ঝাঁপটা দেওয়া ভালো।

মাথা ব্যাথা এবং শরীর ব্যথা 

সারাদিন কম্পিউটারের সামনে এক ভাবে বসে থাকার ফলে আমাদের শরীরের নানা জায়গায় ব্যাথা হয়ে যায়। দীর্ঘক্ষণ একদিকে তাকিয়ে থাকার জন্যে আমাদের ঘাড়ও ব্যথা করে। চোখের উপর চাপ পড়ার ফলে আমাদের মাথাও ব্যাথা হয়ে যায়। আর কম্পিউটারের সামনে দীর্ঘক্ষণ বসে থাকলে আমাদের শরীর এবং মনের বিশ্রামের সময় কমে যায়। তাই এর ফলে মাথা ব্যাথা করতে শুরু করে।

অনিদ্রা

কম্পিউটারের সামনে সারাদিন বসে থাকলে আমরা রাতেও সেই নিয়ে ভাবতে থাকি যার ফলে আমাদের ঘুম হয়না। আমাদের মন চঞ্চল হয়ে ওঠে। আমাদের স্বাভাবিক ঘুমের অভ্যাসও পাল্টে যায়। কয়েকটি গবেষণা করে জানা গিয়েছে যে দিনে ৫ ঘন্টার বেশি কম্পিউটারের সামনে বসে থাকলে সেইটা যথেষ্ট আমাদের অনিদ্রার কারণের হিসেবে।

সাইবার ক্রাইম

বেশিক্ষণ কম্পিউটারের সামনে বসে থাকা মানে আমাদের নিজেদের সম্পর্কে আরো বেশি তথ্য দেওয়া কম্পিউটারের দুনিয়াকে। অনেক হ্যাকাররা মুখিয়ে থাকে আমাদের ক্ষতি করার জন্য। তাই খেয়াল রাখা দরকার যে আমরা যেন শুধুমাত্র ওয়েবসাইটে খুব দরকার পড়লেই আমাদের ব্যক্তিগত তথ্য দিই নাহলে যেন কোনো তথ্য না দেওয়া হয়।

নেশা 

আমরা যদি কোনো কিছু দরকার বা জানার জন্য কম্পিউটার খুলি,যেই বিষয়টা আমাদের জানার জন্য জরুরি। সেইখান থেকে আমরা অন্য সম্পর্কিত বিষয়ে চলে যাই। হাইপার লিংক দিয়ে। দ্বিতীয় জায়গা থেকে আরেক সম্পর্কিত বিষয়ের খোঁজে চলে যাই। এইভাবে আমরা ঘুরতেই থাকি আর আমাদের এই স্বভাবটা নেশা হয়ে দাঁড়ায়।

তাহলে আমরা বুঝতেই পারছি কম্পিউটার যেমন আমাদের জীবনে বহু সুবিধা এনে দিয়েছে আবার সেই কম্পিউটার কিন্তু আমাদের জীবনে নানা সমস্যাও নিয়ে এসেছে। কম্পিউটারকে পরিত্যাগ করা সম্ভব না কিন্তু আমাদের চেষ্টা করতে হবে যে যত পারা যায় কম সময় কম্পিউটারের সামনে বসতে। কম্পিউটারের বাইরের মানুষজনদের সাথে কথা বলা এবং বন্ধুত্ব করা খুবই জরুরি। আর সারাদিন কম্পিউটারের সামনে বসে থাকলে আমাদের নানা রোগ এবং সমস্যা দেখা দিতে পারে যা আমি আগেই লিখেছি। এরকম সমস্যা দেখা দিলে আমাদের অবশ্যই ডাক্তারের থেকে পরামর্শ নেওয়া উচিত।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


%d bloggers like this: