blog

কোন কোন ফলের রস খেলে ত্বক ভালো থাকবে

আমরা সবাই ফল খেতে খুবই ভালোবাসি। ফল শুধু যে আমরা শরীরের জন্য ভালো এটা জেনে খাই তা নয়। ফল আমাদের এমনিতেই ভালো লাগে। দুপুরে খাবারের পর ফল না খেলে তো অনেকের খাবার হজমই হয় না। আর ডায়েটে ফল তো থাকতেই হবে। কিন্তু অনেকে ফল চিবিয়ে না খেয়ে ফলের রস খেতে বেশি ভালোবাসেন। আজকের ব্যস্ত দিনে অবশ্য এতে আশ্চর্য হওয়ার কিছু নেই। সকালে ব্রেকফাস্টে ফলের রস চটপট খেয়ে কাজে যাওয়া তো আমাদের খুবই পরিচিত ঘটনা। আজ আসুন জেনে নিই, এই ফলের রস শরীরের পাশাপাশি আমাদের ত্বকের জন্য আলাদা ভাবে কতটা উপকারী।

১। পাতিলেবুর রসঃ- আমরা সবাই জানি যে পাতিলেবুতে ভিটামিন সি থাকে। আর ভিটামিন সি থাকায় একসঙ্গে অনেকগুলো উপকার হয়। ভিটামিন সি ত্বককে ভিতর থেকে পরিষ্কার করে। তাই ত্বক উজ্জ্বল হয়। এছাড়া ত্বককে টানটান রাকে ভিটামিন সি। তাই বলিরেখাও কম হয়। ত্বকের পি.এইচ ব্যাল্যান্স বজায় রাখতেও পাতিলেবুর রস খেতে পারেন।
এক গ্লাস উষ্ণ জলে দু চামচ লেবুর রস নিন। তার মধ্যে এক চামচ মধু নিন। এটা রোজ সকালে ঘুম থেকে উঠে খেয়ে নিন। দেখবেন খুব সুন্দর উপকার পাবেন।
২। পাকা পেপের রসঃ- পাকা পেপে খেতে বেশ ভালো আর সাড়া বছরই প্রায় পাওয়া যায়। এতে থাকা অ্যান্টি অ্যাজিং প্রপার্টি ত্বকের বয়স ধরে রাখে। ডার্ক সার্কেল যেমন হতে দেয় না, তেমনই সান ট্যান হওয়ার থেকেও আমাদের রেহাই দেয়। পেপেতে থাকা প্যাপেন নামের এনজাইম স্কিন ড্যামেজ হতে দেয় না। তাই পেপের রস খান।
পাকা পেপে ভালো করে কুড়িয়ে নিয়ে তার থেকে রস বের করে নিন। অল্প চিনি দিতেও পারেন, নাও দিতে পারেন। এবার এটা খেয়ে নিন সকালে ব্রেকফাস্টে।
৩। আপেলের রসঃ- আপেল আমাদের শরীরের জন্য কতটা উপকারী সেটা আপনারা নিশ্চয়ই এত দিনে দাশবাসের আর্টিকেল পড়ে জেনে গেছেন। ত্বকের জন্যও কিন্তু আলাদা ভাবে খুবই উপকারী এই আপেলের রস। আপেলের রসে থাকা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট বলিরেখা দূর করে। আমাদের ত্বকের টিস্যু নষ্ট হতে দেয় না, বরং নতুন কোষ জন্মাতে সাহায্য করে। আপেলের মধ্যে থাকা কপার, ক্লোরিন, জিঙ্ক, ম্যাগনেসিয়াম ত্বককে উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে।
আপেল এমনিতেই খেতে খুব ভালো। তাই আপেলের রস সরাসরি সকালে খেয়ে নিন এক গ্লাস। পেটও ভরবে আর ত্বকও ভালো থাকবে।
৪। আনারসের রসঃ- আমরা সবাই জানি যে আনারস আমাদের ওজন কমাতে সাহায্য করে। কিন্তু জানেন কী, ত্বকের জন্যও আনারস কতটা উপকারী? গবেষণায় দেখা গেছে, আনারসে থাকা আলফা হাইড্রক্সি অ্যাসিড ত্বকের বয়স ধরে রাখে। রক্ত ভিতর থেকে পরিষ্কার করে ত্বক উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে আনারসের রস। ব্রণর দাগ বা কালো ছোপ সরিয়ে ফেলতেও আনারসের রসের তুলনা নেই।
আনারস থেকে রস বের করে নিন। এর পর সামান্য নুন যোগ করুন। দেখবেন এতে স্বাদ খানিক ভালো হবে।
৫। তরমুজের রসঃ- এখন ঠাণ্ডা পেরিয়ে গরম কাল আসচ্ছে। তাহলে এই গরম এর মসুম এর ফল টা থেকে কি কি উপকার পাওয়া যায় আসুন জেনে নি। গরমকাল মানেই তরমুজে বাজার ভরে যাবে। তাই তরমুজের রস খান যত খুশি। তরমুজে থাকা ভিটামিন এ, বি৬, সি ত্বকের ভিতর থেকে টক্সিন বের করে দেয়। ফলে পাওয়া যায় উজ্জ্বল দাগহীন ত্বক। ত্বক থেকে অতিরিক্ত তেলের সমস্যা দূর করে ব্রণ বা অন্যান্য সমস্যাও কম হতে দেয়। ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখে।
তরমুজ এমনিতেই খুব মিষ্টি। তাই সরাসরি তরমুজ থেকে রস বের করে খেয়ে নিন। কিছু আর যোগ করতে হবে না।
৬। আমের রসঃ- স্বাদের জন্য আম তো ফলের রাজা বটেই। কিন্তু ত্বকের উপকার করার জন্যও আমকে রাজা বলাই যায়। আপেলে থাকা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট শরীরের ফ্রি র্যা ডিকেল দূর করে। কোষ পুনর্গঠন করতে সাহায্য করে। নিয়মিত আমের রস খেলে ত্বকের কালো ছোপ দূর হয়। এতে থাকা ভিটামিন সি ত্বকের থেকে মেলানিন কম করে। ত্বক উজ্জ্বল করে।
ফলের রাজার সঙ্গে অন্য কিছু কী আর চলে! আমের রস শুধুই খেয়ে নিতে পারেন সকালে। দেখবেন খেতে ভালো লাগার পাশাপাশি ত্বকেরও আস্তে আস্তে কত উন্নতি হচ্ছে।

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


%d bloggers like this: